১- ৬ নং বিবাদী পক্ষে বাদী গনের আনিত অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনার বিরুদ্ধে লিখিত আপত্তি ।

Post No. 27

মাননীয়,

দাগনভূঞা সিনিয়র সহকারী জজ আদালত

জেলা-ফেনী

দেং ১*৩/২৩ইং

জাকের হোসেন                          ——-বনাম—–                          জাবেদ হোসেন

    ——বাদী                                                                                 ——বিবাদী

১- ৬ নং বিবাদী পক্ষে বাদী গনের আনিত অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনার বিরুদ্ধে লিখিত আপত্তি ।

১।      বাদীগনের আনিত অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা একান্ত মিথ্যা, তঞ্চক, হেতু বিহীন ও দুলালসা মুলক হয়। হেতু অভাবে বাদীর অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা সরাসরি অগ্রাহ্য হইবে।

২।      স্বকার্য্যজনিতবাধা, স্বীকারোক্তি, ওয়েভার, একুইসেন্স প্রভৃতি দোষে বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা আদৌ শ্রুতযোগ্য নহে ।

৩।      বাদীগনের মামলার কোন Cause of action নাই। Cause of action অভাবে বাদীর অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা সরাসরি অগ্রাহ্য হইবে।

৪।      অত্রাকারে ও প্রকারে বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা আদৌ Maintainable নহে।

৫।      বাদীগনের বর্তমান অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা আনয়ন করার কোন Locusstandi নাই। Locusstandi অভাবে বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা অগ্রাহ্য হইবে।

৬।      দেঃ কাঃ বিঃ আইনের ৩৯ আদেশের ১/২ নিয়মের বিধান মতে বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা সরাসরি খারিজ হইবে।

৭।      বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনায় উল্লেখিত নালিশী ভূমির সহিত স্বরে জমিনে কোন মিল না থাকায় বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা খারিজ হইবে।

৮।      নালিশী ভূমিতে বাদীগন নিঃস্বত্ববান ও দখল বিহীন বাক্তি হয়। আইনতঃ ও ন্যায়তঃ নিঃস্বত্ত্ববান ও দখল বিহীন বাদীগন প্রকৃত দখল করে এই বিবাদীগনের বিরুদ্ধে কোনরূপ নিষেধাজ্ঞার আদেশ পাইবে না।

৯।      বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা অত্যন্ত অস্পষ্ট Vague, Indefinite, Inconsistent and condradictary হয়। উক্তরূপ প্রার্থনা মুলে বাদীগন কোন ফল বা প্রতিকার পাইবে না।

১০।     আইন ও নজিরের মর্মমতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ না পাইলে সম্ভাব্য ক্ষতি টাকার অংক পূরন যোগ্য বিধায় বাদীগনের ক্ষতির কোন সম্ভাবনা নাই বিধায় বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা সরাসরি খারিজ হইবে।

১১।     বাদীগনের অনুকুলে Strong primafacie Arguable Case না থাকায় বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা খারিজ হইবে।

১২।     সুবিধা অসুবিধা বিবেচনায় সুবিধা আপত্তিকারী বিবাদীর অনুকূলে থাকায় বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা সরাসরি অগ্রাহ্য হইবে।

১৩।     বাদী Clean hand and clean breast নিয়া মামলা নাকরায় বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা সরাসরি খারিজ হইবে।

১৪।     নালিশী সাবেক খতিয়ানের ৬৪৫ ডিং ভূমি আর্জি ভূক্ত করিয়া সকল অংশীদারকে বিবাদী শ্রেনী ভূক্ত করিয়া এখতিয়ার সম্পর্ন আদালতে স্বত্ব সাব্যস্হে বণ্টন সূত্রে খাস দখলের মামলা না করায় বাদীগন বর্তমান মামলায় কোনরূপ নিষেধাজ্ঞার আদেশ পাইবে না।

১৫।     বাদীগনের আর্জি ও অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনায় বর্নিত সকল বিবরন মিথ্যা, বানোয়াট, তঞ্চক উদ্দেশ্য প্রনোদিত, প্রকৃত অবস্হার বিপরীত, দুলালসা মুলক, হেতু বিহীন ও মিথ্যামামলার অজুহাত সৃষ্টির উদ্দেশ্যে রচিত কাল্পনিক উক্তি মাত্র। আপত্তিকারী বিবাদীগন অতি দৃঢ়তার সহিত ও সত্য জ্ঞানে বাদীগনের অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনার সকল বিবরন অস্বীকার করিতেছে।

১৬। প্রকৃত কথা এই যে,

অত্রাদালত এলাকা ও দাগভূঞা থানাধীন ১৩৭ নং নরোত্তমপুর মৌজার পেটি জরিপী (দাড়রা) ১৪৫ খতিয়ানে রায়ত গনের মালিকী দখলীয় ভূমির পরিমান ৬৪৫ ডিং হয়। আপত্তিকারী বিবাদী গনের ঊর্ধ্বতন মৌরশ জানবক্স হিস্যা।৵ আনা অংশে ২৮২.১৮ডিং ভূমিতে এবং বাদী গনের উর্ধ্বতন মৌরশ আশ্রাপ আলী হিস্যা। আনা অংশে ১৬১.২৫ ডিং ভূমিতে মালিক দখলকার নিযুক্ত ছিলেন। অপর অংশীদার বাদশা মিয়া ৷৴ আনা অংশে ২০১.৫৬ ডিং ভূমিতে মালিক দখলকার নিযুক্ত ছিলেন। জানবার মৃত্যুতে নূরুল হক, আবদুর রব, নূরুল আমিন, নুরের জামান আপত্তিকারী বিবাদী গনের পিতা আবদুল কাদের ৫ পুত্র জান বক্সের ত্যাজ্য ভূমিতে মালিক দখলকার নিযুক্ত হয়। আশ্রাফ আলীর মৃত্যুতে বাদীগনের পিতা নুর আহাম্মদ, মকবুল আহাম্মদ, শেখ আহাম্মদ, রফিক আহাম্মদ ৪ পুত্র ও আবিয়া খাতুন, মাফিয়া খাতুন, অপর কন্যা সহ ৩ কন্যা আশ্রাফ আলীর ত্যাজ্য ভূমিতে মালিক দখলকার নিযুক্ত ছিলেন। বাদীগনের পিতা নুর আহাম্মদ ও তদ ভ্রাতা মকবুল আহাম্মদ ১ম পক্ষ থাকিয়া জান বক্সের পুত্র নূরুল হক ও আবদুর রব ২য় পক্ষ থাকিয়া ১১/১১/১৯৫৮ ইং তারিখ ৪৯৯৩ নং এওজ দলিল সম্পাদন ও রেজিষ্টি রাখিয়াছেন। উক্ত এওজ দলিলের ১ম পক্ষ নুর আহাম্মদ ও মকবুল আহাম্মদ পেটি জরিপে (দাড়রা) ১৪৫ নং খতিয়ানের ৬৪ ডিং ভূমি এবং পেটি জরিপী দাড়রা ৬০১ খতিয়ানে ১৮৭৭ দাগে ০২ ডিং প্রাপ্ত হয় এবং এওজ দলিলের ২য় পক্ষ নূরুল হক ও আবদুর রব কাশিমপুর মৌজার সি/এস ৫২৪ খতিয়ানের ৯৬ ডিং ভূমি প্রাপ্ত হয়। বাদীগনের পিতা নুর আহাম্মদ এবং মকবুল আহাম্মদ এওজ সূত্রে প্রাপ্ত ৬৬ ডিং ভূমি সাবেক ১৮৮১/১৯৩৫/১৯৩৬/১৮৮৯/১৮৮৭/১৮৮৫/১৮৯৪/১৮৯৩/১৯০২/১৯০০/১৮৭৬/১৮৭৭ দাগে দখল গ্রহন করিয়াছেন। উক্ত এওজ সূত্রে ৬৬ ডিং ভূমি বাংলাদেশ জরিপে মকবুল আহাম্মদ/শেখ আহাম্মদ/রফিক আহাম্মাদ এবং বাদী গনের নামীয় বি/এস ১০৫৮ খতিয়ানের ৪৩৬২/৪৩৭২/৪৩৭৫/৪৩৭৮ /৪৩৭৯/৪৩৮১/৪৩৮২/৪৩৮৪/৪৩৯১/৪৪০২ দাগে রেকর্ড হইয়াছে। ৪৯৯৩ নং এগু দলিলে নালিশী সাবেক ১৯০৮ / ১৮৮৫ দাগ উল্লেখ থাকিলে ও এওজ কারী ১ম পক্ষ নুর আহাম্মদ ও মকবুল আহাম্মদ দখল নানেওয়ায় তাহাদের নামীয় বি/এস ১০৫৮ খতিয়ানে রেকর্ড হয় নাই। বাদীগন তাহাদের নামীয় বি/এস ১০৫৮ নং খতিয়ান আরজিতে গোপন করিয়া মিথ্যা মামলা আনয়ন করা দৃষ্ট হয়। নালিশী সাবেক ১৯০৮ দাগের মুল মালিক জান বক্সের ৫ পুত্রের মধ্যে পারিবারিক আপোষ বণ্টনে জান বক্সের পুত্র আবদুল কাদের নালিশী সাবেক ১৯০৮ দাগে ০৭ ডিং ভূমিতে একক মালিক দখলকার নিযুক্ত থাকিয়া ভোগ দখলে থাকাবস্হায় ২০০১ ইং সনে বাংলাদেশ জরিপে আমলে সাবেক ১৯০৮ দাগের ০৭. ডিং ভূমি ১-৬ নং বিবাদীগনের পিতা আবদুল কাদেরের নামে বি/এস ১৩৮ খতিয়ানে ৪৩৯৫ দাগ রকম ভিটি ০৭ ডিং ভূমি সঠিক ও শুদ্ধ ভাবে রেকর্ড হয়। নালিশী সাবেক ১৯০৮ দাগের ভূমি বাদীগনের মৌরশ নুর আহাম্মদ ও মকবুল আহামাদ মালিক দখলকার থাকিলে তাহাদের নামীয় বি/এস ১০৫৮ খতিয়ানে রেকর্ড না হওয়ায় কোন কারন ছিল না। বি/এস জরিপের সময় বাদীগন এবং মকবুল আহাম্মদ নালিশী ভূমি দাবী করিয়া কোন আপত্তি করে নাই । বি,এস জরিপের সময় খতিয়ানের মূল মালিক জান বন্ধু ও আশ্রাফ আলীর ওয়ারিশগন স্বয়ং উপস্হিত থাকিয়া যার যার মালিকীয় দখলীয় ভূমি বাবদ বি/এস খতিয়ান প্রস্তুত করা হইয়াছে। আবদুল কাদেরের ওয়ারিশ ১- ৬ নং বিবাদীগনের মধ্যে পারিবারিক আপোষ বণ্টনে নালিশী সাবেক ১৯০৮ দাগ সংকান্ত মালিশী বি/এস ৪৩৯৫ দাগের ০৭ ডিং ভূমি ২ নং বিবাদী আবদুর রহিম একক দখলকার নিযুক্ত হইয়াছে। নালিশী সাবেক ১৯০৮ দাগে ০৭ডিং ভূমিতে উত্তরকারী বিবাদীগনের পিতা মালিক দখলকার নিযুক্ত থাকিয়া তথায় মেহগনি গাছ, কড়াই গাছ, নারিকেল সুপারি আম গাছ সহ বিভিন্ন ফল ফলাদি বৃক্ষ লাগাইয়া ভোগ দখল করিয়া আসিতেছে এবং দাগের আংশিক ভূমিতে এই বিবাদীগনের পিতা খড়ের ছিন (খড়ের গাছা) স্হাপন করিয়া মৌরশানুক্রমে ভোগ দখল করিয়া আসিতেছে। বিবাদীগনের মৌরশি বসত বাড়ীতে বসবাসের স্হান সংকুলান না হওয়ায় ২ নং বিবাদী নালিশী ৪৩৯৫ দাগের ভূমিতে মাটি ভরাট করিয়া বসত উপযোগী ভূমিতে রুপান্তর করিয়া ২ মাস পূর্বে ০৭ ডিং ভূমির মধ্যম অংশে ৪ তলা ফাউন্ডেশন দিয়া ৪৫ x ৩০ ফুট পরিমাপের বসত বাড়ী নির্মাণ আরম্ভ করিয়াছে। প্রভাব শালী ও বিত্তশালী বাদীগন নিরীহ ২ নং বিবাদীর বিল্ডিং নির্মানে ইর্ষান্বিত হইয়া নালিশী ভূমিতে ২ নং বিবাদীর নির্মান কাজ বন্ধ করার জন্য বিভিন্ন অপকৌশলের আশ্রয় গ্রহন করেন। বাদীগন নালিশী ৪৩৯৫ দাগের ০৭ ডিং ভূমি এই বিবাদীগন হইতে খরিদ করার জন্য বিভিন্ন ভাবে এই বিবাদীগনের উপর চাপ প্রয়োগ করিতে থাকে। বর্তমানে বসত বাড়ীর ভূমিতে বিবাদীগনের মৌরশানুক্রমে বসত ভূমির স্বল্পতার কারনে বিবাদীগন নালিশী ভূমি হস্তান্তর করিতে অপারগতা প্রকাশ করে। ইহাতে বাদীগন ক্ষিপ্ত হইয়া বিবাদীগনকে ক্ষতিগ্রস্হ করার হীন মানসে বর্তমান হয়রানী মূলক মোকদ্দমা আনয়ন করিয়াছে।

বাদীগন কিংবা তাহাদের মৌরশ নালিশী বি/এস ৪৩৯৫ দাগে ০৭ ডিং আন্দরীয় ০১ ডিং ভূমিতেও মালিক দখলকার ছিলেন না এবং বর্তমানেও বাদীগন তাহাতে মালিক নাই এবং দখল করে না। বাদীগন বিজ্ঞ আদালতের মিথ্যার আশ্রয় গ্রহন করিয়া এক তরফা স্হিতাবস্হা বজায় রাখার আদেশ প্রাপ্ত হইয়াছে। উক্তরূপ বাদীগনের প্রতারনার ফলে এই বিবাদীগনের ৫ লক্ষ টাকা মূল্যমানের গৃহ নির্মান সামগ্রী তথা সিমেন্ট, রড, বালি ইট, নষ্ট হইয়া যাওয়ার উপক্রম হইয়াছে। ১ নং বাদী মোহাম্মদ শাহজাহান ১/২নং বিবাদীর বিরুদ্ধে ২২/০৬/২০২৩ইং তারিখে অভিযোগ করিলে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যগন সরজমিনে তদন্ত করিয়া ও পক্ষগনের কাগজ পত্র পর্যালোচনা করিয়া এবং পক্ষগনের মৌখিক বক্তব্য শুনিয়া ২২/০৬/২০২৩ ইং তারিখ এই মর্মে সিদ্ধান্ত প্রদান করেন যে, বিজ্ঞ অদালত কিংবা সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে বাদীপক্ষ মালিক সাব্যস্থ হইলে বিবাদীপক্ষ তখনই বাদীপক্ষকে দখল বুঝাইয়া দিবে। পক্ষগন সালিশ নামা মানিয়া নিয়া তাহাতে স্বাক্ষর করিয়াছে। বাদীগনের দাবীকৃত ২৫/০৪/১৯৫৯ ইং তারিখের ২৫০৫ নং সাফ কবলা দলিলে আবৃত ৩০ ডিং ভূমি বাদীগনের মৌরশ নুর আহাম্মদ গং ৪ ভ্রাতা সাবেক ১৯১০/ ১৯৩৫/১৮৭৬/১৮৮৫/১৮৯৪ দাগে দখল বুঝিয়া নিয়াছেন। উক্ত ৩০ ডিং ভূমি বাদীগনের এবং তাহাদের ভ্রাতা ও চাচার নামে বি/এস ১০৫৮ খতিয়ানের ৪৩৯৯/৪৩৭২/৪৪০২/ ৪৩৭৯/৪৩৮১ দাগে রেকর্ড হইয়াছে। বাদীগন উক্ত বি,এস খতিয়ান ও দাগ আর্জিতে গোপন করিয়া বর্তমান মিথ্যা মামলা আনয়ন করিয়াছে। ২৫০৫ নং দলিল মুলে বিক্রেতা নূরুল আমিন খরিদ্দার নূর আহাম্মদ গং ৪ ভ্রাতাকে নালিশী সাবেক ১৯০৮ দাগের কোন ভূমি দখল দেয় নাই। দলিলে সাবেক ১৯০৮ দাগ লিপি থাকিলে ও বিক্রেতা নূরুল আমিন সাবেক ১৯০৮ দাগের ভূমিতে দখলে ছিলেন না এবং বিক্রি করে নাই। জানবক্সের ৫ পুত্রের মধ্যে মৌখিক পারিবারিক আপোষ বণ্টনে জানবক্সের পুত্র আবদুল কাদের ১৯০৮ দাগের ০৭ ডিং ভূমিতে একক ভাবে ভোগ দখলে থাকায় তাহা বি/এস জরিপে আবদুল কাদেরের নামে বি/এস ১৩৮ খতিয়ানে ৪৩৯৫ দাগে সঠিক ও শুদ্ধ ভাবে রেকর্ড হইয়াছে। ২ নং বিবাদী জীবন জীবিকার প্রয়োজনে দক্ষিন আফ্রিকাতে চাকুরী করেন। ছুটিতে অল্প কিছু দিনের জন্য দেশে আসিয়া পরিবার পরিজনের বসবাসের জন্য মৌরশানুক্রমে মালিকীয় দখলীয় সাবেক ১৯০৮ দাগ হাল ৪৩৯৫ দাগের ভূমিতে বসত ঘর নির্মান করিতেছে। ২ নং বিবাদী অল্প কিছু দিনের মধ্যে বিদেশের কর্মস্হলে যোগদান করিবে। বাদীগন ইহা বুঝিতে পারিয়া ভবিষ্যৎ দূরভিসন্ধি মুলক ভাবে অসৎ উদ্দেশ্যে ২ নং বিবাদীর ক্ষতি করাক অপচেষ্টার লিপ্ত হইয়াছে । ২ নং বিবাদীর অনুপস্হিতিতে বাদীগন নালিশী ভূমি জবর দখল করার হীন মানসে অত্র মামলা আনয়ন করিয়াছে। নালিশী ভূমি বসতবাড়ীর সম্মুখ ভাবে অবস্হিত হয়। ২ নং বিবাদীর ৪ তলা বসত ঘর নির্মান করা হইলে বাদীগনের টিনসেটের দালান ঘর আড়ালে পড়িয়া যাইবে এবং ইহাতে তারা ২ নং বিবাদীর প্রতি ইর্ষান্বিত ও ক্ষিপ্ত হইয়া বর্তমান মামলা ও নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা আনয়ন করেন। নালিশী সাবেক ১৯০৮ দাগের ০৭ ডিং ভূমিতে আপত্তিকারী বিবাদীগন মৌরশানুক্রমে নিরবিচ্ছিন্ন ভাবে তামাদি ও দর তামাদের উর্ধ্বকাল যাবত ভোগ দখলে থাকিয়া আপত্তিকারী বিবাদীগনের মধ্যে ২ নং বিবাদী তাহা পারিবারিক আপোষ বণ্টনে ভোগ দখলে থাকিয়া নালিশী ১৯০৮ দাগের ভূমিতে দালান গৃহ নির্মান করিতেছে। প্রকৃত মালিক দখলকার বিবাদীগনের বিরুদ্ধে আইনত বাদীগন কোন নিষেধাজ্ঞার আদেশ পাইতে পারে না। বাদীগন বিজ্ঞ আদালতে প্রতারনার আশ্রয়ে স্থিতাবস্হা বজায় রাখার আদেশ হাসিল করিয়া ২ নং বিবাদীর ৫ লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি সাধন করিয়াছে। তদুপরি সম্ভাব্য ক্ষতি টাকার অংকে পূরন যোগ্য নহে। আইনত ও ন্যায়তঃ নিঃস্বত্ববান ও দখল বিহীন বাদীগনের অনুকূলে প্রদত্ত স্থিতাবস্হার আদেশ বাতিল হইবে। অন্যথায় বৈধ মালিক দখলকার এই বিবাদীগনের অপূরনীয় ক্ষতি হইবে। বাদীগন এওজ দলিলের ২য় পক্ষ নূরুল হক ও আবদুর রবের ওয়ারিশগনকে শঠতার আশ্রয়ে বর্তমান মামলায় পক্ষ করে নাই এবং তাহাদের বিরুদ্ধে কোন দাবী প্রকাশ করে নাই। ইহা ছাড়া ও এওজ দলিলের অন্যতম ১ম পক্ষ মকবুল আহাম্মদের ওয়ারিশগনকে অসৎ উদ্দেশ্যে বর্তমান মামলায় পক্ষ করে নাই। বাদীর কথিত মতে মকবুল আহাম্মদের ওয়ারিশ ও বাদীগনের অপর দুই ভ্রাতা বাদীগনকে নালিশী ভূমি আপোষে দখল দেওয়া জঘন্য মিথ্যা হয়। নালিশী বি/এস ৪৩৯৫ দাগের চৌহুদ্দিতে কাছারীঘর কিংবা অপর কোন ঘর নাই তাহা কখনই উঠান হিসাবে ব্যবহৃত হয় নাই। উক্ত ভূমি বসত বাড়ীর সমুখ অংশে উচ্চু নীচু বসত অনুপযোগী ভূমি ছিল। এই বিবাদীগন তাহাতে অনেক অর্থ ব্যয় করিয়া বসত উপযোগী ভূমিতে পরিনত করিয়াছে। নালিশী ভূমি বিবাদীগন অন্যায় ভাবে বি/এস ১৩৮ খতিয়ানে রেকর্ড করানো ও ইহাতে বাদীগনের স্বত্ত্বের উপর কালিমা আরোপিত হওয়া জঘন্য মিথ্যা হয়। বাদীগন অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ না পাইলে ক্ষতির কোন সম্ভাবনা স্হিতাবস্হা বজায় রাখার আদেশ বজায় থাকিলে এই বিবাদী পক্ষের অপূরনীয় ক্ষতি হইবে। বাদীগনের মতে এই বিবাদীগন কারন দর্শানোর নোটিশ পাইয়া নালিশী ভূমিতে নির্মান কাজ আরম্ভ করা ও থানা কর্তৃপক্ষ স্হানীয় চেয়ারম্যান মেম্বার এই বিবাদীগনকে নালিশী ভূমিতে নির্মান কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া জঘন্য মিথ্যা হয়। বাদীগনের দাবী Bonafide নহে। বাদীর মামলা মিথ্যা Test case বটে।

১৭। উপরোক্ত অবস্হা ও কারনাধীনে বাদীগনের মিথ্যা অস্হায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা খারিজ হইবে ও এক তরফা স্হিতাবস্হা বজায় রাখার আদেশ বাতিল হইবে এবং আপত্তি কারী বিবাদীগন ক্ষতি খরচ পাইবে।

                   সত্যপাঠ

অত্র আপত্তির যাবতীয় লিখিত বিবরন আমার জ্ঞান ও বিশ্বাস মতে সত্য। অত্র সত্যতায় শুদ্ধ স্বীকারে নিমো আমার নিজ নাম স্বাক্ষর করিলাম ।

ইতি/ তাং-

Related Posts

দেওয়ানী কার্যবিধি আইনের ৩৯ আদেশের ১/২নং রুলের বিধানমতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা। injunction.

মাননীয়, ছাগলনাইয়া সহকারী জজ আদালত, ফেনী জেলা- ফেনী। দেওয়ানী মোকদ্দমা নং- ১৮২/২ ইং।               মোঃ রফিক গং        বনাম           আবুল কালাম গং                 ——বাদী                              —- বিবাদী বাদীপক্ষে ১/২নং বিবাদীর বিরুদ্ধে দেওয়ানী…

বিবিধ আপিল এর আর্জির নমুনা। Drafting।

সহকারী জজ আদালত থেকে জেলা জজ আদালতে আপিল। মাননীয়, ফেনী জেলা ও দায়রা জজ আদালত জেলা- ফেনী বি.আ………/২৪ ইং। (তাঁহার দেওয়ানী আপীল এখতিয়াধীন)। তায়দাদ মং- ৩,০০,০০০/- টাকা। ১। আবুল কালাম,…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You Missed

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -05. (APPEAL CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -05. (APPEAL CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -04. (APPEAL CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -04. (APPEAL CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -03. (MISCELLANEOUS CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -03. (MISCELLANEOUS CASE)
Criminal-Question No-02 (Criminal Part) with Application for bail.

দেওয়ানী কার্যবিধি আইনের ৩৯ আদেশের ১/২নং রুলের বিধানমতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা। injunction.

  • By admin
  • April 1, 2024
  • 239 views
দেওয়ানী কার্যবিধি আইনের ৩৯ আদেশের ১/২নং রুলের বিধানমতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা। injunction.

বিবিধ আপিল এর আর্জির নমুনা। Drafting।

  • By admin
  • April 1, 2024
  • 174 views