১০৯/৩২৩/৩০৭/৩৫৪/৩৭৯/৪৪৮/৪৫১/৪৫২/৫০৬/৫০৬(ii) দন্ডবিধির অধীনে মামলার Drafting.

Post NO-93

মাননীয়,

       সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও ফেনী সদর আমলী আদালত, ফেনী।

       জেলা- ফেনী।

এফ.সি.আর মামলা নং-        /২০২২ ইং।

ছকিনা বেগম(৩৬), স্বামী-মোঃ পাভেল, বাড়ী- বন্দে আলি ভূঁইয়া বাড়ী, সাং- নেয়াজপুর, পোঃ- সেনবাগ, থানা- ফেনী সদর, জেলা- ফেনী।

                                                          ……………বাদিনী।

                            ==== বনাম ====

১। জয়নাল আবেদিন মিঞা (৪০), পিতা- মৃত অহিদুর রহমান,

২। মহিন উদ্দিন (৪৮), পিতা- মৃত ফজল হক,

সর্ব সাং- হাসিম মুক্তার বাড়ী, সাং- নেয়াজপুর, পোঃ-সেনবাগ, থানা- ফেনী সদর, জেলা- ফেনী।

৩। মোজাম্মেল হক প্রকাশ সাধন মাস্টার (৪৮), পিতা- মোঃ ইদ্রিস, বাড়ী- মুজামিয়ার বাড়ি, সাং- নেয়াজপুর,পোঃ-সেনবাগ, থানা- ফেনী সদর, জেলা- ফেনী।

৪। আবদুল হালিম ভূঁইয়া প্রকাশ সিরাজ (৫৫), পিতা- মৃত হাজী আফাক মিঞা , বাড়ি- হাজী আফাক মিয়ার বাড়ি, সাং- জয়নারায়নপুর, পোঃ- সেনবাগ, থানা- দাগনভূইয়া, জেলা- ফেনী।

                                                     …………… আসামীগণ।

১। বাদিনী নিজে,

২। মাইমুনা খাতুন (১৬), পিতা- মোঃ পাভেল,

৩। মোঃ পাভেল (৩৮), পিতা- মৃত আবদুল সোবহান,

৪। লিলুফা বেগম (৬০), স্বামী- মৃত আবদুল সোবহান,

৫। জেসমিন বেগম (৩২), স্বামী- আবদুল হান্নান,

৬। আবদুল মালেক (৫৫), পিতা- মৃত হেঞ্জু মিয়া,

সর্ব বাড়ী- বন্দে আলি ভূঁইয়া বাড়ী, সাং- নেয়াজপুর, পোঃ-সেনবাগ, থানা- ফেনী সদর, জেলা- ফেনী।

   প্রয়োজনে আরো স্বাক্ষী দেওয়া যাইবে।  

                                                       ………… স্বাক্ষীগণ।

   চলমান পাতা – ১/৩

          পাতা-২

১ম ঘটনার তারিখ-২৫/১২/২০২১ইং

ঘটনার সময়- সোমবার, বিকাল- ০৪.০০ ঘটিকা।

ঘটনার স্থান- বাদিনীর বসত ঘর।

২য় ঘটনার তারিখ-২৫/০১/২০২২ইং

ঘটনার সময়-  মঙ্গলবার, রাত আনুমানিক ১১.৩০ ঘটিকা।

ঘটনার স্থান- বাদিনীর বসত ঘর।

ধারাঃ ১০৯/৩২৩/৩০৭/৩৫৪/৩৭৯/৪৪৮/৪৫১/৪৫২/৫০৬/৫০৬(ii) দঃ বিঃ ।

নিবেদন এই,

       উপরোক্ত মামলার বাদিনী একজন সহজ, সরল গ্রাম্য বধু ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল । আসামীগণ জোর জুলুমবাজ, সন্ত্রাসী প্রকৃতির ও আইন অমান্যকারী বটে। বিগত ২০১৬ সালে আমার ননদ নাসিমা খাতুনের স্বামী জসিম উদ্দিন ১নং আসামী জয়নাল আবেদিন মিঞাকে কাতার নিয়া যায়। ১নং আসামী আমার ননদের মারপতে যোগাযোগ করিয়া টাকা পয়সার লেনদেন করিয়া বিদেশ চলিয়া যায়। উক্ত সময়ে আমার স্বামী প্রবাসে ছিল, তাহার সহিত  ১নং আসামীর এই বিষয়ে কোন সম্পৃক্ততা ছিলনা। কাতারে যাওয়ার পর ১নং আসামী ১৬/০১/২০১৭ ইং তারিখে মেডিকেল আনফিট হইয়া দেশে চলিয়া আসে। অতঃপর দীর্ঘ ১৬/০১/২০১৭ সাল হইতে ১০/১০/২০২১ইং তারিখ পর্যন্ত আসামীগণ আমার ননদের স্বামী জসিম উদ্দিন হইতে লেনদেনের টাকা আদায়ের চেস্টা করিতে থাকেন। আমার ননদের স্বামী ১নং আসামীকে জবাব দেন “তুমি মেডিকেল আনফিট হইয়াছো তাহাতে আমার কি করার আছে”। আমার ননদের স্বামীর বাড়ী কুমিল্লা জেলায় হইবার কারণে আসামীগণ তাঁদের সাথে কিছু করিতে না পারিয়া বিগত ২৫/১২/২০২১ইং তারিখ ১ম ঘটনার দিন আমাদের বাড়িতে আসিয়া আমাকে ধমক দিয়া জানায় যে, আমার স্বামী যেন তাহাদের লেনদেনের ৪,৫০,০০০/- টাকা আদায় করিয়া দেয়,  না দিলে আমার স্বামী দেশে আসিলে জানে মারিয়া ফেলিবে এবং আমার মেয়েকে ধর্ষণ করিয়া মারিয়া ফেলিয়া আত্নহত্যা করিয়াছে বলিয়া গাছে লটকাইয়া দিবে।  বিগত ০২/১১/২০২১ইং তারিখে আমার স্বামী দেশে আসে। অতঃপর আসামীগণ প্রতিনিয়ত আমার স্বামী মোঃ পাভেলকে আমার ননদের স্বামী জসিম উদ্দিন হইতে টাকা আদায় করিয়া দিবার জন্য ধমক ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করিতে থাকে। তাঁদের ধমকে ভীত সন্ত্রস্ত হইয়া বিগত ১১/১১/২০২১ইং তারিখে ফেনী মডেল থানায় আমার স্বামী বাদী হইয়া একখানা সাধারণ ডায়রী, যাহার নাম্বার ৭৩৯

চলমান পাতা -২/৩

পাতা-৩

আনায়ন করে। বিগত ২৫/০১/২০২২ইং তারিখে ২য় ঘটনার দিন আনুমানিক রাত ১১.৩০ ঘটিকায়  আসামীগণ আমার স্বামীর বাড়িতে ডুকিয়া আমার স্বামীর নাম ধরিয়া গালিগালাজ করিতে থাকে, ঘরের দরজা বন্ধ দেখিয়া টিনের দরজায় লাত্থি মারিয়া দরজা খুলিয়া ভিতরে প্রবেশ করে। অতঃপর

আমরা কিছু বুঝিয়া উঠার আগেই ১নং আসামী আমার স্বামীকে এলোপাতাড়ী কিল ঘুষি মারিতে থাকে। ২/৩নং আসামীগণ গামছা দিয়া আমার স্বামী ৩নং স্বাক্ষীর গলা পেচাইয়া ধরিয়া মারিয়া ফেলার চেস্টা করে। আমি আমার স্বামীকে বাচাইবার চেস্টা করিলে ১নং আসামী আমাকেও কিল ঘুসি মারিতে থাকে এবং আমার পরণের কাপড় টান মারিয়া খুলিয়া ফেলে। ঘটনার সময় ১নং আসামি আমার পরনে থাকা ১ ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন টান মারিয়া নিয়া যায়। ১/৩নং আসামী আমার মেয়ে মাইমুনা খাতুন (১৬) এর উপর জাপ্টাইয়া তাহার শ্লীলতা হানীর চেস্টাকালে ৪ আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন টান মারিয়া নিয়া যায়। ২/৪নং আসামীগণ আমার শিশু বাচ্ছা মেহেরাজ (১০) ও সাইফ (৭) কে চড় থাপ্পড মারিতে থাকে এবং ঘরে থাকা জিনিসপত্র ভাঙচুর করিতে থাকে। আসামীগন তান্ডব করিয়া চলিয়া যাওয়ার সময় আশেপাশের প্রতিবেশীর শোর-চিৎকার করিতে থাকিলে আসামীগণ ২নং স্বাক্ষী কে ঘুম করিয়া ফেলিবে, ৩নং স্বাক্ষীকে ধর্ষণ করিয়া গাছে লটকাইয়া দিবে বলিয়া ভীতি প্রদর্শন করিয়া চলিয়া যায়। বাদিনীকে ফেনী সদর হাসপাতাল হইতে চিকিৎসা করানো হয়। যাহার রেজিঃ নং ২৫৫৭, তারিখ ২৬/০১/২০২২ইং।

       অতএব, হুজুরাদালত ন্যায় বিচারের জোর জুলুমবাজ প্রকৃতির আসামীগণের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয়  আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে মর্জি হয়।

                                           ইতি তাং-

Related Posts

বিবিধ আপিল এর আর্জির নমুনা। Drafting।

সহকারী জজ আদালত থেকে জেলা জজ আদালতে আপিল। মাননীয়, ফেনী জেলা ও দায়রা জজ আদালত জেলা- ফেনী বি.আ………/২৪ ইং। (তাঁহার দেওয়ানী আপীল এখতিয়াধীন)। তায়দাদ মং- ৩,০০,০০০/- টাকা। ১। আবুল কালাম,…

চেকের মামলার আপীল এর নমুনা।

Post No- 118 মোকাম বিজ্ঞ মহানগর দায়রা জজ আদালত, ঢাকা ফৌজদারী আপীল  নং-            /২০১৮ উদ্ভুতঃ দায়রা মামলা নং- ৪৩৫৩/১৪ সি. আর মামলা নং- ৪৫৬/১৩ ধারাঃ এন, আই, অ্যাক্টের ১৩৮ ধারা।…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You Missed

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -05. (APPEAL CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -05. (APPEAL CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -04. (APPEAL CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -04. (APPEAL CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -03. (MISCELLANEOUS CASE)

HIGH COURT PERMISSION EXAM. CRIMINAL DRAFTING -03. (MISCELLANEOUS CASE)
Criminal-Question No-02 (Criminal Part) with Application for bail.

দেওয়ানী কার্যবিধি আইনের ৩৯ আদেশের ১/২নং রুলের বিধানমতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা। injunction.

  • By admin
  • April 1, 2024
  • 239 views
দেওয়ানী কার্যবিধি আইনের ৩৯ আদেশের ১/২নং রুলের বিধানমতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার প্রার্থনা। injunction.

বিবিধ আপিল এর আর্জির নমুনা। Drafting।

  • By admin
  • April 1, 2024
  • 174 views